Breaking News
Home / লাইফ স্টাইল / সাবেক প্রেমিকাকে নিয়ে মজা করার খেসারত!

সাবেক প্রেমিকাকে নিয়ে মজা করার খেসারত!

ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনকে নিয়ে একটি মিম ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। ভারতের লোকসভা নির্বাচনের সঙ্গে মিলিয়ে এই মিমে রয়েছে ‘ওপিনিয়ন পোল’, ‘এক্সিট পোল’ ও ‘রেজাল্ট’। এই মিমে ‘ওপিনিয়ন পোল’-এ ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনকে দেখানো হয়েছে সালমান খানের সঙ্গে। ‘এক্সিট পোল’-এ তাঁকে দেখা গেছে বিবেক ওবেরয়ের সঙ্গে আর সবশেষে ‘রেজাল্ট’-এ ঐশ্বরিয়ার সঙ্গে আছেন তাঁর স্বামী অভিষেক বচ্চন ও মেয়ে আরাধ্য। মিমটি কিন্তু বলিউড তারকা বিবেক ওবেরয় নিজে তৈরি করেননি। তিনি মিমটি টুইটারে শেয়ার করে লিখেছেন, ‘কী সৃজনশীলতা! এখানে কোনো রাজনীতি নেই…এটা জীবন।’

ছবিটা টুইটারে পোস্ট করার পরই তীব্র সমালোচনার মুখোমুখি হন বিবেক ওবেরয়। সোনম কাপুর সমালোচনা করে লিখেছেন, ‘এটা ন্যক্কারজনক ও কুরুচিকর কাজ!’ ঊর্মিলা মাতোন্ডকর আর মধুর ভান্ডারকরও এর প্রতিবাদ করেছেন।

মিমটি জাতীয় মহিলা কমিশনের নজরে আসার পর বিবেক ওবেরয়ের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হয়। এরই মধ্যে জাতীয় মহিলা কমিশন থেকে তাঁকে নোটিশ পাঠানো হয়েছে। গতকাল সোমবার পাঠানো ওই নোটিশে বলা হয়েছে, ‘একজন নারীর ব্যক্তিগত জীবনের সঙ্গে বুথফেরত সমীক্ষার ফলাফলের কুরুচিকর তুলনা টেনেছেন অভিনেতা বিবেক ওবেরয়।’ আরাধ্যর সঙ্গে ঐশ্বরিয়ার ছবি পোস্ট করা নিয়ে আপত্তি জানিয়ে কমিশন বলেছে, ‘ওই ছবি পোস্ট করা অত্যন্ত আপত্তিকর, অনৈতিক এবং তা সাধারণভাবে গোটা নারী জাতির প্রতি অমর্যাদা ও অসম্মান প্রদর্শন করা হয়েছে।’

ভক্তরা যেসব মন্তব্য করেছেন, তার মধ্যে রয়েছে ‘আপনাকে ছেড়ে অভিষেককে বেছে নেওয়ার সিদ্ধান্ত যে ঐশ্বরিয়ার একদম সঠিক ছিল, তা প্রমাণ করে দিলেন।’ ‘সালমান খান যে আপনার ক্যারিয়ারের বারোটা বাজিয়ে দিয়েছিলেন, সে ব্যাপারে আর কোনো সন্দেহ রইল না।’ অনেকেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির জীবনীচিত্রে বিবেক ওবেরয়ের অভিনয়ের প্রসঙ্গে টেনে বলেন, ‘নরেন্দ্র মোদির জীবনীচিত্রে অভিনয় করার জন্য সবচেয়ে যোগ্য অভিনেতা তিনি। তাতে অবাক হওয়ার কিছু নেই।’ একটা বড় অংশ লিখেছে, ‘ফ্রান্সের কান চলচ্চিত্র উৎসবের রেড কার্পেটে দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন। ওই সময় নিজের দেশে সাবেক প্রেমিক টুইটারে ট্রোল করছেন তাঁকে। সেখানে আরাধ্যর মতো শিশুকেও রাখা হয়েছে।’

এই নোংরামি করার জন্য টুইটারে অনেকেই বিবেক ওবেরয়কে ক্ষমা চাইতে বলেছেন। তখন বিবেক ওবেরয় মন্তব্য করেন, ‘আমি ক্ষমা চাইতে রাজি আছি, কিন্তু কেন ক্ষমা চাইব? আমি কী ভুল করেছি? কেউ মিমটা পোস্ট করেছে, আমি তাতে হেসেছি। বুঝতে পারছি না, সবাই এটাকে কেন এত বড় করে তুলছে! যে মিমটি তৈরি করেছে, আমি তার সৃজনশীলতার প্রশংসা করেছি। যদি কেউ তোমাকে নিয়ে মজা করে, তাহলে এটা গম্ভীরভাবে দেখার কিছু নেই।’

শেষ পর্যন্ত ক্ষমা চাইতে বাধ্য হয়েছেন বিবেক ওবেরয়। পাশাপাশি যে মিমটি শেয়ার করেছিলেন, তাও টুইটারে নিজের পেজ থেকে মুছে ফেলেছেন। তিনি লিখেছেন, ‘কোনো কিছু নিজের কাছে আনন্দের মনে হলেও অপরের জন্য তেমনটা না-ও হতে পারে। গত ১০ বছর আমি দুস্থ মেয়েদের ক্ষমতায়নের জন্য কাজ করেছি। কোনো নারীকে অসম্মান করার কথা ভাবতেও পারি না।’ পোস্টটি মোছার পর টুইটারে তিনি লিখেছেন, ‘আমার মিমের রিপ্লাইয়ে কোনো একজন নারীও যদি বিরক্ত হন, তাঁর প্রতিকারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। সবকিছুর জন্য আমি দুঃখিত। টুইটটি মুছে ফেলা হয়েছে।’

২০০৩ সালে ‘কিউ! হো গ্যায়া না’ ছবিতে একসঙ্গে কাজ করেছেন বিবেক ওবেরয় ও ঐশ্বরিয়া রাই। এ সময় তাঁদের মধ্যে সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তখন তাঁদের প্রেম নিয়ে সংবাদমাধ্যমে বেশ লেখালেখি হয়েছে। এরপর বিবেক ওবেরয় অভিযোগ করেন, ঐশ্বরিয়ার সঙ্গে মেলামেশার কারণে সালমান খান তাঁকে হুমকি দিচ্ছেন। বিবেক ওবেরয় ও ঐশ্বরিয়া রাইয়ের প্রেম বেশি দিন স্থায়ী হয়নি।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে নিয়ে তৈরি হলো চলচ্চিত্র ‘পিএম নরেন্দ্র মোদি’। এই ছবিতে নরেন্দ্র মোদির চরিত্রে অভিনয় করেছেন বিবেক ওবেরয়। ভারতের ১৭তম লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর ২৪ মে প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে ছবিটি।

 

– Source: prothomalo